মে মাসে ফের সাগরে ভাসছে টাইটানিক

titanic-ship-wreck

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক:  এক শতাব্দীরও আগে ১৯১২ সালে উত্তর আটলান্টিকের ডুবন্ত বরফ খণ্ডের সঙ্গে ধাক্কা লেগে সলীল সমাধি হয় টাইটানিকের।

তৎকালীন বিশ্বের সর্ববৃহৎ এবং উচ্চবিলাসী এই প্রমোদতরীটি নিয়ে বর্তমান সময়েও জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই কোনো।

এখনো যেনো আটলান্টিকের শীতল শান্ত জলের অতলে ডুবে থাকা টাইটানিক রোমাঞ্চ প্রিয় মানুষের ঘুম চোখে হানা দেয় বারংবার।  তবে ভারী পকেটের যাত্রীরা চাইলে এই স্বপ্ন পূরণ করতে পারবেন।

মে মাসে দেখা যাবে ডুবন্ত টাইটানিককে! কিন্তু কীভাবে?  লন্ডন ভিত্তিক ট্রাভেল কোম্পানি ব্লু মার্বেল প্রাইভেট, আগামী বছরের মে মাস থেকে এই সুবিধা চালু করতে যাচ্ছে।

এর জন্য প্রত্যেক ব্যক্তিকে ১ লক্ষ ৫ হাজার আমেরিকান ডলার বা প্রায় ৮৪ লক্ষ টাকা গুণতে হবে বলে জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

কখনো ডুবে যাবে না এমন ঘোষণা দেয়া টাইটানিক জাহাজটি ডুবে যাবার বহুবছর পর রবার্ট ব্যালার্ড ও তার দল এটিকে খুঁজে বের করেন ১৯৮৫ সালে।  টাইটানিকে এটাই শেষ ভ্রমণসুযোগ বলে জানিয়েছে ট্রাভেল কোম্পানিটি।

তাছাড়া ২০১৬ সালের এক গবেষণায় দেখা গেছে, নতুন আবিষ্কৃত ‘এক্সট্রিমোফিল ব্যাকটেরিয়া’ জাহাজটির ধ্বংসাবশেষ খাওয়া শুরু করে দিয়েছে।  এভাবে চলতে থাকলে আগামী ১৫ থেকে ২০ বছরের মধ্যেই একেবারে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে এটি।

তার আগেই সমুদ্রের তলদেশে ঘুমন্ত টাইটানিককে যত সম্ভব মানুষকে দেখার সুযোগ করে দিতে সম্ভাব্য আট দিনের যাত্রা ঠিক করেছে ব্লু মার্বেল প্রাইভেট।

কানাডার নিউফাউন্ডল্যান্ড থেকে বিশেষভাবে নির্মিত টাইটানিয়াম ও কার্বন-ফাইবারের তৈরি ডুবোজাহাজে করে তারা যাত্রীদের নিয়ে যাবে আটলান্টিকের প্রায় দুই কিলোমিটার গভীরে।

তবে প্রথম ভ্রমণের সব টিকিট ইতোমধ্যে শেষ হয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছে ব্লু মার্বেল।  উল্লেখ্য, ১৯১২ সালের ১৫ এপ্রিল উত্তর আটলান্টিক সাগরে বরফের পাহাড়ের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে ডুবে যায় আসল টাইটানিক জাহাজ।  এ ঘটনায় দেড় হাজারের বেশি যাত্রী ও নাবিক নিহত হন। -সিএনএন

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s